Loading...

প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ (হার্ডকভার)

স্টক: স্টকে আছে (৫৬ এর বেশি কপি আছে)

২২৫.০০ ১৮০.০০

প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদঃ

বর্তমানের এই ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার যুগে নিজের সঠিক ও সত্যনিষ্ঠ মতামত প্রকাশ করা খুবই সহজ হয়ে গিয়েছে। ঠিক এই সুযোগের অপব্যবহার করে যাচ্ছে এক শ্রেনীর নাস্তিক্যমনা ব্লগাররা। ২০১৩ সালে পর থেকে যখন নাস্তিক্যহতে শুরু করে। তখন ইসলাম বিদ্বেষী মিথ্যার এই মায়াজাল ভেদ করে নতুন প্রজন্মকে ইসলামের সত্য ও সুন্দরের পথ দেখাতে যে কয়েকজন স্কলার ত্রাতা হিসেবে আবির্ভূত হন তার মধ্যে আরিফ আজাদ অন্যতম। ''সাজিদ'' চরিত্রকে কেন্দ্রবিন্দুতে রেখে তিনি রচনা করেন সাজিদ সিরিজের সবগুলো গল্প। ''প্যারডক্সিক্যাল সাজিদ-২'' রচিত হয়েছে সেই সকল মানুষদের ইসলামবিদ্বষী যুক্তিভিত্তিক প্রতিউত্তরসরূপ যারা ইসলামবিদ্বেষী ব্লগের মাধ্যমে নষ্ট করত হাজার হাজার যুবকদের ঈমান। মন ব্লগারদের ইসলাম বিদ্বেষী,মিথ্যা ও প্রোপাগান্ডামূলক ব্লগে সোস্যালমিডিয়া গুলো সয়লাব

Paradoxical Sajid,Paradoxical Sajid in boiferry,Paradoxical Sajid buy online,Paradoxical Sajid by Arif Azad,প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ,প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ বইফেরীতে,প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ অনলাইনে কিনুন,আরিফ আজাদ এর প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ,9789849295907,Paradoxical Sajid Ebook,Paradoxical Sajid Ebook in BD,Paradoxical Sajid Ebook in Dhaka,Paradoxical Sajid Ebook in Bangladesh,Paradoxical Sajid Ebook in boiferry,প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ ইবুক,প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ ইবুক বিডি,প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ ইবুক ঢাকায়,প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ ইবুক বাংলাদেশে
আরিফ আজাদ এর প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ এখন পাচ্ছেন বইফেরীতে মাত্র 184.00 টাকায়। এছাড়া বইটির ইবুক ভার্শন পড়তে পারবেন বইফেরীতে। Paradoxical Sajid by Arif Azadis now available in boiferry for only 184.00 TK. You can also read the e-book version of this book in boiferry.
ধরন হার্ডকভার | ১৬০ পাতা
প্রথম প্রকাশ 2017-02-03
প্রকাশনী গার্ডিয়ান পাবলিকেশনস
ISBN: 9789849295907
ভাষা বাংলা

ক্রেতার পর্যালোচনা

5
1 reviews

1-2 থেকে 2 পর্যালোচনা

  • পর্যালোচনা লিখেছেন 'Mijun Uddin Masud'
    বর্তমান তরুন প্রজন্মের জন্য প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ-১ ও ২ নিঃসন্দেহে অনেক উপকারি বই! নাস্তিকবাদ, ইসলাম সম্পর্কে আরোপিত খারাপ মন্তব্যের সঠিক জবাব অত্যন্ত হিকমতের সাথে দেওয়া হয়েছে এ বই-তে! লেখক আরিফ আজাদ সাহেব এমন ভাবে প্রথম দিকের ঘটনা গুলো তুলে ধরেছেন যে সেগুলো যদি ইসলামের প্রাথমিক জ্ঞান কোন মুসলিমের থাকে তবে সে খুব ভালো ভাবেই আরোপিত অযৌক্তিক মন্তব্যের উত্তর দিতে পারবে, এর জন্য তার এই বইটি প্রয়োজন হবে নাহ্! প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ-১ গ্রন্থটি এই সিরিজের ১ম বই। বইটি প্রকাশ করা হয় ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারির অমর একুশে গ্রন্থমেলায়। বইটির মোড়ক উন্মোচন হয় ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারির ০৯ তারিখ। বইটি প্রকাশ করে গার্ডিয়ান পাবলিকেশন্স। প্রকাশের অল্পদিনের মধ্যে বইটি বেস্টসেলার তালিকায় চলে আসে। বইটি পরবর্তীতে ইংরেজি ও অসমীয়া ভাষায় অনূদিত হয়। প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ-২ বইটি লেখকের লেখা ২০১৭ সালের একুশে বইমেলায় প্রকাশিত বই "প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ-১" এর দ্বিতীয় কিস্তি। বইটি ২০১৯ একুশে বইমেলায় বেস্টসেলার ছিল এবং বইটির প্রকাশ ২০১৯ বইমেলায় কয়েক দফায় সরকারি নির্দেশে বন্ধ করার পর আবার পুনরায় তা প্রকাশের অনুমতি দেওয়া হয়। গল্পের মূল চরিত্রের নাম ‘সাজিদ’। বইটিতে পার্শ্বচরিত্র হিসেবে আছেন লেখক নিজে। লেখক সাজিদের বন্ধু, রুমমেট। সাজিদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞানের ছাত্র। বইয়ের প্রথম গল্পে ‘সাজিদ’ কে একজন সংশয়বাদীরূপে দেখা যায়। সৃষ্টিকর্তার অস্তিত্ব-অনস্তিত্ব নিয়ে ব্যাপক যুক্তি-তর্কের শেষ পর্যায়ে সাজিদকে তার স্রষ্টায় ও ইসলামে বিশ্বাস পুনঃরায় ফিরে পেতে দেখা যায়। এরপর বিশ্বাসী সাজিদ একের পর এক গল্পে বিভিন্ন কৌতুহলী মানুষের কাছে তার ইসলামী বিশ্বাসকে তুলে ধরে। সে তার তথ্য ও যুক্তির মাধ্যমে ইসলাম ও স্রষ্টা নিয়ে সংশয়ে থাকা ব্যক্তিদের সংশয় দূর করার প্রয়াস চালায়। সাজিদ কখনো নিজের শিক্ষক মফিজুর রহমানকে বুঝিয়ে আসে কেন ‘তাকদির’ তথা ‘ভাগ্য’ ইস্যুতে স্রষ্টা বিতর্কিত নন। সাজিদ যুক্তির নিক্তিতে প্রমাণ দেখায় কেন স্রষ্টা মানুষের ভালো কাজের বেলায় প্রশংসা পেলেও মন্দ কাজের বেলায় দায়বদ্ধ নন। সাজিদের বড় ভাই তুল্য বিপ্লব দা'র কাছে সে প্রমাণ করে আসে কিভাবে বিজ্ঞানের আধুনিক পরিভাষা ‘কোয়ান্টাম’ মেকানিক্স কোনভাবেই স্রষ্টাকে খারিজ করে দিতে পারেনা। সে আরো প্রমাণ দেখায় যে কেন স্রষ্টা দয়ালু হবার পরেও জাহান্নামের মতো ভয়ানক জিনিস তৈরি করেছেন। নীলু দা নামের আরেক চরিত্র, যিনিও বিপ্লব দা’র মতো সাজিদের কাছে বড় ভাইয়ের মতোই সমাদৃত, তার কাছে প্রমাণ দেখায় যে কোনভাবেই কোরআনের কোন আয়াত ‘সন্ত্রাসবাদী’ নয়। এভাবে বিভিন্ন জায়গায়, বিভিন্ন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সাজিদকে ইসলাম ধর্মের উত্তমতা, সঠিকতা ও প্রামাণ্যতা তুলে ধরার বিষয়ে একজন অভিজ্ঞ বক্তা, যুক্তিবাদী এবং বাস্তববাদী হিসেবে দেখা যায়।
    June 30, 2022
  • পর্যালোচনা লিখেছেন 'Md. Jashim Uddin'
    📃বই পর্যালোচনাঃ "বিশ্বাসের কথা কতটা শোক করে বলা যায়? বিশ্বাসী প্রাণের সুর অনুপম হতে পারে? বিশ্বাসকে যুক্তির দাঁড়িপাল্লায় মাপা কি খুব সহজ?অবিশ্বাসীকে কতটা মায়াভরা স্পর্শে বিশ্বাসের শীতল পরশ দেওয়া যায়?যুক্তিতে মুক্তি নাকি বিশ্বাসের যুক্তিতে মুক্তি? " 'প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ 'পড়ে এসবের উত্তর মিলতে পারে। গল্পের নায়ক হলো সাজিদ। এই নায়ক কোনো রোমান্টিক সিনেমার বা কোনো একশনধর্মী সিনেমার নায়ক না।এই নায়ক হলো নাস্তিকদেরকে বিপক্ষে কুরআনের পক্ষে লড়াই করার নায়ক। সাজিদ প্রথমদিকে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়লেও পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে সে নাস্তিক হয়ে যায়। একদিন তার রুমমেট আরিফের সাথে ধর্ম নিয়ে কিছু তর্কে জড়ায় এবং আরিফের যথার্থ যুক্তিতে হার মেনে সে আবার আস্তিক হয় এবং নামাজ পড়তে শুরু করে। সাজিদের কয়েকজন বন্ধু, তার স্যার মফিজুর রহমান, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র কয়েকজন ভাইয়েরা নাস্তিক এবং এরা বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে সাজিদকে কুরআন নিয়ে অযৌক্তিক প্রশ্ন করে প্রমান করতে চায় স্রষ্টা বলতে কিছু নাই কিন্তু সাজিদ ও হাল ছাড়ার মতো ছেলে নন,সে কুরআন নিয়ে তাদের প্রশ্নের উত্তর কুরআনের মাধ্যমেই দিয়েছেন। এবং প্রমাণ করে দেখিয়েছে স্রষ্টা আছেন। 📜বইটির কিছু উক্তি : "আমরা বিজ্ঞান দিয়ে কুরআনে বিচার করিনা;বরং দিন শেষে বিজ্ঞানই কুরআনের সাথে এসে কাঁধে কাঁধ মেলায়।" কম গতিশীল কোনো বস্তুতে সময় অধিক পরিমাণ দ্রুত চপল।আর যে বস্তু অধিক গতিতে চলে,তার সময়ও তুলনামূলক কলম গতিসম্পন্ন বস্তুর চেয়ে কম দ্রুত চলে।আর এটাকেই বলা হয় "Time Dilation." "একসময় যুবকেরা হিমু হতে চাইত।হলুদ পাঞ্জাবি গায়ে দিয়ে,মরুভূমিতে গর্ত খুঁড়ে জ্যোৎস্না দেখার স্বপ্ন দেখত।দেখিস,এমন একদিন আসবে যেদিন যুবকেরা সাজিদ হতে চাইবে।"
    June 30, 2022
আরিফ আজাদ
লেখকের জীবনী
আরিফ আজাদ (Arif Azad)

আরিফ আজাদ আরিফ আজাদ একজন জীবন্ত আলোকবর্তিকা- লেখক আরিফ আজাদকে বর্ণনা করতে গিয়ে একথাই বলেছেন ডঃ শামসুল আরেফিন। গার্ডিয়ান প্রকাশনী আরিফ আজাদের পরিচয় দিতে গিয়ে লিখেছে, “তিনি বিশ্বাস নিয়ে লেখেন, অবিশ্বাসের আয়না চূর্ণবিচুর্ণ করেন।” আরিফ আজাদ এর বই মানেই একুশে বইমেলায় বেস্ট সেলার, এতটাই জনপ্রিয় এ লেখক। সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশের সাহিত্য অঙ্গনে সবচেয়ে আলোড়ন তোলা লেখকদের একজন আরিফ আজাদ। ১৯৯০ সালের ৭ই জানুয়ারি চট্টগ্রামে জন্ম নেয়া এ লেখক মাধ্যমিক শিক্ষাজীবন শেষ করে চট্টগ্রাম জিলা স্কুলে। একটি সরকারি কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন এবং সেখানে উচ্চশিক্ষা সম্পন্ন করেন। লেখালেখির ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই আরিফ আজাদ এর বই সমূহ পাঠক মহলে ব্যাপক সাড়া ফেলে। তার প্রথম বই ‘প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ’ ২০১৭ সালের একুশে বইমেলায় প্রকাশ পায়। বইটির কেন্দ্রীয় চরিত্র সাজিদ বিভিন্ন কথোপকথনের মধ্যে তার নাস্তিক বন্ধুর অবিশ্বাসকে বিজ্ঞানসম্মত নানা যুক্তিতর্কের মাধ্যমে খণ্ডন করে। আর এসব কথোপকথনের মধ্য দিয়েই বইটিতে অবিশ্বাসীদের অনেক যুক্তি খণ্ডন করেছেন লেখক। বইটি প্রকাশের পরপরই তুমুল জনপ্রিয়তা পায়। এটি ইংরেজি ও অসমীয়া ভাষায় অনূদিতও হয়েছে। ২০১৯ সালের একুশে বইমেলায় ‘প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ - ২’ প্রকাশিত হয়ে এবং এটিও বেস্টসেলারে পরিণত হয়। সাজিদ সিরিজ ছাড়াও আরিফ আজাদ এর বই সমগ্রতে আছে ‘আরজ আলী সমীপে’ এবং ‘সত্যকথন’ (সহলেখক) এর মতো তুমুল জনপ্রিয় বই।

সংশ্লিষ্ট বই